Wn/bn/বাংলাদেশে বিজয় দিবসে ২৭ হাজার ১১৭ জনের মানব পতাকা

< Wn‎ | bn
Wn > bn > বাংলাদেশে বিজয় দিবসে ২৭ হাজার ১১৭ জনের মানব পতাকা
নিরীক্ষণের জন্য অপেক্ষমান!  এই নিবন্ধটি ১৩ জুন, ২০২৪ অনুযায়ী নিরীক্ষণ বা পর্যালোচনা করা হয়নি। এখানে প্রদর্শিত তথ্যগুলোর পুনঃমূল্যায়ন করুন। (আরও জানুনশোধন)

সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৩

বিজয় দিবস কুচকাওয়াজ, ঢাকা, বাংলাদেশ
বাংলাদেশ
বাংলাদেশ
সম্পর্কিত শিরোনামগুলো
অংশগ্রহণ
বাংলাদেশ
বাংলাদেশ

বিজয় দিবস বাংলাদেশে বিশেষ দিন হিসেবে রাষ্ট্রীয়ভাবে দেশের সর্বত্র পালন করা হয়। প্রতি বছর ১৬ই ডিসেম্বর বাংলাদেশে দিনটি বিশেষভাবে পালিত হয়। এদিন বাংলাদেশে সরকারী ছুটির দিন। ৯ মাস যুদ্ধের পর ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে হানাদার পাকিস্তানী বাহিনীর প্রায় ৯০,০০০ সদস্য বাংলাদেশ ও ভারতের সমন্বয়ে গঠিত যৌথবাহিনীর কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মসমর্পণ করে। এর ফলে পৃথিবীর বুকে বাংলাদেশ নামে একটি নতুন স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্রের অভ্যুদয় ঘটে। এ উপলক্ষে প্রতি বছর বাংলাদেশে দিবসটি যথাযথ ভাবগাম্ভীর্য এবং বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার সাথে পালিত হয়।

২০১৩ সালের ১৬ ডিসেম্বরের বিজয় দিবসটিকে স্বরণীয় করে রাখতে ও বিশ্বরেকর্ড গড়ার জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় প্রায় ২৭ হাজার ১১৭ জন মানুষের মাধ্যমে বাংলাদেশ সময় বেলা ১টা ৩৬ মিনিটে শেরেবাংলা নগরের প্যারেড গ্রাউন্ডে প্রায় ছয় মিনিট ও ১৬ সেকেন্ড লাল ও সবুজের মাধ্যমে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ফুটিয়ে তোলা হয়। এর নাম দেওয়া হয়েছিল ‘লাল-সবুজের বিশ্বজয়’।

উল্লেখ্য, অংশগ্রহণকারীর সংখ্যার দিক দিয়ে গিনেস বুকে এর আগের রেকর্ডটি পাকিস্তানের। গত বছর ২১ অক্টোবর লাহোর হকি স্টেডিয়ামে ওই মানব-পতাকার অংশ হয়েছিলেন ২৪ হাজার ২০০ পাকিস্তানি।


উৎস

edit

  • "‘বিশ্বজয়ের’ মানব-পতাকায় ২৭ হাজার মুখ" — বিডিনিউজ২৪.কম, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৩
  • "২৭ হাজার মানুষ দিয়ে লাল-সবুজের একটি পতাকা" — বিবিসি বাংলা, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৩


শেয়ার করুন!

ইমেইল করুন এই খবরকে

ফেসবুকে শেয়ার করুন

টেলিগ্রামে শেয়ার করুন

লিঙ্কডইনে শেয়ার করুন

টুইটারে শেয়ার করুন

শেয়ার করুন!

ইমেইল করুন এই খবরকে

ফেসবুকে শেয়ার করুন

টেলিগ্রামে শেয়ার করুন

লিঙ্কডইনে শেয়ার করুন

টুইটারে শেয়ার করুন