Wn/bn/মিয়ানমারে ফেসবুকের কিছু সেবা বাধাগ্রস্ত

< Wn‎ | bn
Wn > bn > মিয়ানমারে ফেসবুকের কিছু সেবা বাধাগ্রস্ত
  এই নিবন্ধটি ১৭ এপ্রিল, ২০২৪ অনুযায়ী নিরীক্ষণ বা পর্যালোচনা করা হয়নি। এখানে প্রদর্শিত তথ্যগুলোর পুনঃমূল্যায়ন করুন। (আরও জানুনশোধন)

বৃহস্পতিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

মিয়ানমারে ফেসবুকের কিছু সেবা বাধাগ্রস্ত করা হচ্ছে। মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের তিন দিনের মাথায় আজ বৃহস্পতিবার এ কথা জানিয়েছে ফেসবুক।

মিয়ানমারের যোগাযোগ ও পরিবহন মন্ত্রণালয় জানিয়েছে এই বাধা ৭ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বহাল থাকবে।

ফেসবুকও বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ফেসবুকের একজন মুখপাত্র বলেন, ‘সংযোগ পুনঃস্থাপনের জন্য আমরা কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানাই। যাতে মিয়ানমারের জনগণ তাদের পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারে। যাতে তারা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেতে পারে।’

বিশ্বজুড়ে ইন্টারনেট বিভ্রাট পর্যবেক্ষণ করা প্রতিষ্ঠান নেটব্লকস জানিয়েছে, মিয়ানমারে ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারীরা দেশটিতে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও হোয়াটসঅ্যাপে ব্যবহারের ক্ষেত্র বিঘ্ন সৃষ্টি করছে। অনেকেই ভিপিএন ব্যবহার করে বাধা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

নেটব্লকস এক টুইটার পোস্টে লিখেছে, সরকারের ‘ব্লকিং’ আদেশ মেনে মিয়ানমারের ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারী একাধিক অপারেটর দেশটিতে ফেসবুকের মালিকানাধীন বিভিন্ন সেবা ব্যাহত করছে।

গত সোমবার মিয়ানমারে অভ্যুত্থান করে দেশটির সেনাবাহিনী। এসময় তারা মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) নির্বাচিত সরকার উৎখাত করে ক্ষমতা দখল করে। মিয়ানমারের সেনা কর্তৃপক্ষ দেশটিতে এক বছরের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করেছে। সু চিসহ শীর্ষ রাজনৈতিক নেতাদের তারা বন্দী করেছে। দেশটিতে অভ্যুত্থানের দিন থেকেই ইন্টারনেট পরিষেবা নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে।


উৎস edit

  • "Myanmar military blocks Facebook, social media as pressure grows" — আল জাজিরা, ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১
  • "মিয়ানমারে ফেসবুকের কিছু সেবা বাধাগ্রস্ত" — প্রথম আলো, ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১


  শেয়ার করুন!
  শেয়ার করুন!