Wn/bn/বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেতা খালেদ খানের জীবনাবসান

< Wn‎ | bn
Wn > bn > বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেতা খালেদ খানের জীবনাবসান
নিরীক্ষণের জন্য অপেক্ষমান!  এই নিবন্ধটি ৩১ মে, ২০২৪ অনুযায়ী নিরীক্ষণ বা পর্যালোচনা করা হয়নি। এখানে প্রদর্শিত তথ্যগুলোর পুনঃমূল্যায়ন করুন। (আরও জানুনশোধন)

শনিবার, ২১ ডিসেম্বর ২০১৩

বাংলাদেশের জনপ্রিয় নাট্য ও টেলিভিশন অভিনেতা খালেদ খান ২০শে ডিসেম্বর ২০১৩ সালে শুক্রবার রাজধানী ঢাকার একটি হাসপতালে মৃত্যুবরণ করেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে মোটর নিউরন সমস্যায় ভুগছিলেন এবং জীবনের শেষ দিকে তিনি হুইলচেয়ারে করে চলাফেরা করতেন। তাকে তাঁর পৈত্রিক নিবাস টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে শনিবার দাফন করা হয়।

১৯৭৮ সালে নাগরিক নাট্যদলের 'দেওয়ান গাজীর কিসসা' নাটকে কাজ করার মাধ্যমে তার অভিনয় জীবনের শুরু। তিনি ৩০টিরও বেশি নাটকে অভিনয়ের পাশাপাশি নির্দেশনা দিয়েছেন ১০টি নাটকে। খালেদ খান ১৯৫৮ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি টাঙ্গাইলে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি টিভি পর্দায় কাজ করেছেন 'সিঁড়িঘর', 'এই সব দিনরাত্রি', 'তুমি কোন কাননের ফুল', 'রূপনগর', 'মফস্বল সংবাদ', 'ওথেলো এবং ওথেলো', 'দমন', 'লোহার চুড়ি'র মতো জনপ্রিয় নাটকে। 'রূপনগর' নাটকের হেলাল চরিত্রের জন্য তিনি খ্যাত। মৃত্যুকালে তিনি রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী স্ত্রী মিতা হক ও কন্যা জয়িতাকে রেখে যান।


উৎস

edit
  • "অভিনেতা খালেদ খানের দাফন মির্জাপুরে" — বিবিসি বাংলা, ডিসেম্বর ২১, ২০১৩
  • "খালেদ খান আর নেই" — দৈনিক প্রথম আলো, ডিসেম্বর ২১, ২০১৩


  শেয়ার করুন!
  শেয়ার করুন!